শেরপুরে বিএনপির ২৭জন কর্মী আ. লীগে যোগদান প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

বগুড়ার শেরপুরের খামারকান্দি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের বিএনপির ২৭জন কর্মী আ. লীগে যোগদান করেছেন সংবাদটি দৈনিক আজকালের খবর, দৈনিক জয়যুগান্তর ও সাপ্তাহি বিজয় বাংলার অনলাইনে গত শনিবার প্রকাশিত হয়েছে। যে ২৭জন বিএনপি থেকে আ.লীগে যোগদান করেছে তারা বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত নেই, তাদের কোন পদ পদবি নেই, এমনকি তারা কোন মিছিল মিটিংএ কোনদিন আসেনি। এমনটি দাবি করে রোববার (২৩ জুন) দুপুর ২টায় শেরপুর বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় শেরপুর প্রেসক্লাব কার্যালয়ে খামারকান্দি ইউনিয়নের বিএনপির সভাপতি কায়কোবাদ ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওহাব সংবাদ সম্মেলন করেছেন। 
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, অন্য একটি রাজনৈতিক দল আমাদের দলের মধ্যে বিভ্রান্তি বা দলীয় ভাবমুর্তি নষ্ট করার এটি একটি অপকৌশল চালাচ্ছে বলে আমরা মনে করি। বিএনপি থেকে আওয়ামীলীগে যোগদান করার প্রশ্নই আসে না। তারা কোনদিন বিএনপি করতোনা। লোক দেখানোর জন্য এই ২৭জন বিএনপির নাম ভেঙ্গেছে। বিএনপি থেকে আ.লীগে যোগদান করেছে সংবাদটির তিব্র নিন্দা জানাচ্ছি। তারা বিএনপি করে এটা মিথ্যা, ভিত্তিহীন, বানোয়াট। আমাদের ইউনিয়ন বিএনপির ৭১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি আছে এর মধ্যে তাদের কোন নাম নেই। যে ২৭ জন আমাদের বিএনপির নাম ভেঙ্গে চলে গেছে এতে আমাদের দলের কোন ক্ষতি হবেনা বলে মনে করি। 
উল্লেখ্য, গত শনিবার সকাল ১১টায় টাউন ক্লাব লাইব্রেরী মহিলা কলেজের হল রুমের সরকারদলীয় স্থানীয় সাংসদ আলহাজ্ব মজিবর রহমান মজনুর হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে যোগদানকৃতর খামারকান্দি ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ঘৌড়দৌর গ্রামের  আবু শাহিন, মিজানুর রহমান, রাজু আহম্মেদ, ওহাব সরকার, শাহাদৎ, আল আমিন, মাহবুবুর রহমান, আব্দুল্লাহ, মোস্তাফিজার, সোহেল রানা,রফিকুল, আজিজুল হক, সবুজ, চাঁনমিয়া, মমিন, সাজেদুল করিম, আলিমসহ ২৭জন আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।
উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক সুলতান মাহমুদের সঞ্চালনায় এ সময় তাদের শপথ বাক্য পাঠ করান শেরপুর উপজেলা আ.লীগের সভাপতি এ্যাড. গোলাম ফারুক। 
 

বিজ্ঞাপন