রাত পোহালেই কাহালু উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

রাত পোহালেই মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে বগুড়ার কাহালু উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলবে। নির্বাচনের জন্য সোমবার সকাল থেকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী রিটাণিং অফিসার মোছা, মেরিনা আফরোজ উপস্থিত থেকে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের বুঝিয়ে দেন বালট বাক্স সহ নির্বাচনী সরঞ্জাম।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন কাহালু উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোসা. জান্নাতুল ফেরদৌস, উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোছা. মাহমুদা আক্তার, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মো. আব্দুল জব্বার সহ উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ।
উপজেলা অডিটোরিয়াম হল থেকে নির্বাচনী সরঞ্জাম বুঝে নিয়ে স্ব স্ব ভোটকেন্দ্রে চলে যান সংশ্লিষ্ট ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যবৃন্দ। অত্র উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠ, নিরপেক্ষ, শান্তিপূর্ণ ও উৎসব মুখর করার লক্ষ্যে ইতিমধ্যে স্থানীয় প্রশাসন সব ধরনের প্রদক্ষেপ নিয়েছেন। নির্বাচনকে বাঁধাগ্রস্ত এবং কেউ যাতে কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে তার জন্য ম্যাজিস্ট্রট, বিজিবি, পুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তৎপর রয়েছেন।
      সংশ্লিষ্ট সুত্র জানান, অত্র উপজেলা মোট ভোটকেন্দ্র রয়েছে ৬৫ টি। এই ৬৫ ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ২০ টি ভোটকেন্দ্রকে অধিক গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে চিহিৃত করে সেই কেন্দ্রগুলোতে অধিক ফোর্স মোতায়েন থাকবে বলে জানানো হয়েছে। যে, কোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়াসহ নির্দেশনার জন্য থাকবেন ১০ জন ম্যাজিস্ট্রেট। এছাড়াও ভোটারদের নিরাপত্তা ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় থাকবে ৭০ জন বিজিবি সদস্য, ১০ টি মোবাইল টিম, ২ টি স্টাাইকিং ফোর্স, রিজার্ভ ফোর্স সহ প্রায় দেড় হাজার আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য। এছাড়াও চাহিদা মোতাবেক র‌্যাব সদস্য সবসময়ের জন্য প্রস্তুত থাকবেন।
      নয়টি ইউনিয়ন, একটি পৌরসভা ও তালোড়া পৌরসভা আংশিক নিয়ে গঠিত কাহালু উপজেলা পরিষদ। এখানে মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৯২ হাজার ৪০৬ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ৯৫ হাজার ৯৫১ জন ও মহিলা ভোটার ৯৬ হাজার ৪৪০ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার সংখ্যা মাত্র ৫ জন। ৬৫ টি ভোটকেন্দ্রে ৫০৯ টি বুথ থাকবে। ভোটগ্রহণের দায়িত্বে থাকবেন ১ হাজার ৬১৩ জন ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা।  এদের মধ্যে  ৭৬ জন পিজাইডিং অফিসার,  ৫০৯ জন সহকারী পিজাইডিং অফিসার ও ১ হাজার ১৮ জন পোলিং অফিসার।
        উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা. মেরিনা আফরোজ জানান, অবাধ, সুষ্ঠ, নিরপেক্ষ, শান্তিপূর্ণ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে সকল প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। কেউ বিশৃঙ্খলা ও নির্বাচন বাঁধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করলে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানে তিনি কাহালু উপজেলাবাসীর সহযোগিতা কামনা করেছেন।  
 

বিজ্ঞাপন