পত্নীতলায় বেগম রোকেয়া দিবস পালিত

"নারীর জন্য বিনিয়োগ, সহিংসতা প্রতিরোধ" এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে পত্নীতলায় উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয় ও জাতীয় মহিলা সংস্থা পত্নীতলার আয়োজনে এবং বেসরকারী এনজিও সংস্থা দি হাঙ্গার প্রজেক্ট বাংলাদেশ ও ডাসকো পত্নীতলার সহযোগিতায় শনিবার বেলা ১০টায় আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস/২৩ উদযাপন উপলক্ষে উপজেলা পরিষদ চত্বরে মানববন্ধন শেষে উপজেলা পরিষদ অডিটেরিয়াম হল রুমে এক আলোচনা সভা ও ৫জন জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান করা হয়।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাঃ রুমানা আফরোজের সভাপতিত্বে ও জাতীয় মহিলা সংস্থা পত্নীতলার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিনুল হকের সঞ্চালনায়  আলোচনা সভায় বেগম রোকেয়া সাখাওয়াতের জীবনী পর্যলোচনা করে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মনোরঞ্জন পাল। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) আজিজুল কবির, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খাদিজাতুল কোবরা মুক্তা, উপজেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি ও পত্নীতলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আলহাজ্ব বুলবুল চৌধুরী, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহিদুর ইসলাম জাহিদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা সহিদুল ইসলাম।
এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীন সহ অন্যান্য কর্মকর্তা, সূধীজন প্রমূখ। আলোচনা সভা শেষে “জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ” শির্ষক কার্যক্রমের আওতায় ৫ ক্যাটাগরীতে ৫জনকে অর্থনৈতিক ভাবে সাফল্য অর্জনকারী নারী ক্যাটাগরিতে তাপসী রাবেয়া, শিক্ষা ও চাকুরী ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী নারী ক্যাটাগরিতে নিয়তি রানী উরাও, সফল জননী নারী ক্যাটাগরিতে প্রতিমা রানী দাস, নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন শুরু করা নারী ক্যাটাগরিতে মান্টিরানী দাস, সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রেখেছেন যে নারী ক্যাটাগরিতে মোসা: শামীমা আক্তারকে শ্রেষ্ঠ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান করা হয়।
অপরদিকে বিকেলে উপজেলার চকনিরখিন মিশনে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস/২৩ উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন