সারিয়াকান্দিতে কিশোরীকে আটকে রেখে পালাক্রমে ধর্ষণ, অতপর….

১২

তাইজুল ইসলাম ।।  
বগুড়ার সারিয়াকান্দির ফুলবাড়ী ইউনিয়নের কিশোরীকে (১৪) আটকে রেখে পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগে রফিকুল ইসলাম (২৮) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ সোমবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে রফিকুল ইসলামকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
গতকাল রোববার দিনগত রাত তিনটার দিকে গাবতলী উপজেলার দূর্গাহাটা বাজার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার রফিকুল ইসলাম ইউনিয়নের ডোমকান্দি দহপাড়ার মৃত মোফাজ্জল প্রামানিকের ছেলে। তিনি পেশায় মাইক্রোবাস চালক। ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরী সারিয়াকান্দি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত ১২ ডিসেম্বরে রফিকুল ওই কিশোরীকে নানা প্রলোভনে বাড়ি থেকে বের করে নিয়ে আসেন। সেখান থেকে কিশোরীকে ঢাকায় নিজের বড় ভাই শফিকুলের বাসায় নিয়ে যান রফিকুল। সেখানে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করেন রফিকুল। এ সময় শফিকুলের শ্যালক বিল্লাল হোসেনও (২৫) তাকে ধর্ষণ করেন। এতে শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে গেলে ১৬ ডিসেম্বর তাকে সারিয়াকান্দিতে গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসেন রফিকুল।

বাড়িতে ফিরে আসার পর কিশোরী তার বাবা-মাকে বিষয়টি বললে ঘটনা জানাজানি হয়। পরে এ বিষয়ে কয়েক দফায় শালিস বৈঠক করেই কোন ফয়সালা না পাওয়ায় ১৯ ডিসেম্বর নির্যাতনে শিকার মেয়েটির বাবা সারিয়াকান্দি থানায় মামলা করেন। এতে রফিুকল, শফিকুল ও বিল্লাল হোসেনকে অভিযুক্ত করা হয়।
ঘটনা নিশ্চিত করে সারিয়াকান্দি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শাহীন রেজা জানান, অভিযোগ পাওয়ার পরপরই অভিযান পরিচালনা করে রফিকুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। শাহীন রেজা বলেন, ভুক্তভোগী ওই কিশোরী সারিয়াকান্দি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছে। আর মামলার অপর দুই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.