করোনা প্রতিরোধে ফের মানুষের দ্বারে দ্বারে ইউএনও রাসেল মিয়া!

২৭

পাভেল মিয়া, সারিয়াকান্দি (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ সরকার ঘোষিত লকডাউন কঠোর ভাবে বাস্তবায়ন করা এবং নিন্ম আয়ের মানুষের খোঁজ-খবর রাখা, সচেতনতার পাশাপাশি লোকজনের মাঝে মাস্ক.স্যানিটাইজার,সাবান বিতরণ করা। বিদেশ হতে ফিরে স্বেচ্ছায় ‘হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা উৎসাহ বাড়ানোর জন্য বাসায় বাসায় গিয়ে ফুলের শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন তিনি। সেই ইউএনও এবারও লকডাউন কঠোর ভাবে বাস্তবায়নের মাঠে নেমেছেন।
দ্বিতীয় ধাপের করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়াতে সরকার সোমবার থেকে সারা দেশে এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করেছেন। তারই প্রেক্ষিতে এখন চলছে সারাদেশে লকডাউন।

আর সরকার ঘোষিত এই লকডাউন বাস্তবায়ন করার জন্য মাঠ পর্যায়ে তীব্র গরমের মধ্যেও সকাল থেকে রাত পর্যন্ত কাজ করে যাচ্ছেন সারিয়াকান্দি উপজেলার নির্বাহী অফিসার রাসেল মিয়া। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে উপজেলাজুড়ে জনসাধারণকে সচেতন করতে হাতে হ্যান্ডমাইক দিয়ে প্রচার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রতিনিয়ত মাস্ক বিতরণ ও মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে তিনি সচেতনতার বাণী শোনাচ্ছেন। এছাড়াও প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিংয়ের মাধ্যমে সবাইকে সচেতন হতে আহ্বান জানানো হচ্ছে।অন্যদিকে মাস্ক ব্যবহার বা সামাজিক দূরত্ব মেনে না চললেও সেখানে ভ্রাম্যমান আদালত বসাচ্ছেন। সেই সাথে মাস্ক ব্যবহার ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য পরামর্শও দিচ্ছেন।ইউএনও রাসেল মিয়া বলেন, আপনারা জানেন সরকার দেশের মানুষের মঙ্গলের কথা ভেবে ইতিমধ্যে লকডাউন ঘোষণা করেছেন। আমরা মাঠ পর্যায়ে সেটা বাস্তবায়ন করছি। এ সময় তিনি আরো বলেন,লকডাউনে মানুষের অনেক কষ্ট হয়। আমরা আপনাদের কষ্টটা বুজি। দয়া করে অল্প ক’টা দিন ঘরে থাকুন।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.