নন্দীগ্রাম পৌরসভা নির্বাচন নৌকার মাঝি হতে ঢাকায় মেয়র প্রার্থীরা

৮২

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি :
বগুড়ার নন্দীগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ফর্ম উত্তোলন ও জমাদানের জন্য এখন ঢাকায় অবস্থান করছেন। এই পৌরসভায় বিগত দিনে বিএনপির মেয়ররা নির্বাচিত হলেও এবার পৌরসভায় আসতে চান আওয়ামী লীগের তিন নেতা।
দলীয় সূত্রে জানা গেছে, মেয়র পদে মনোনয়নপত্র উত্তোলন করেছেন পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনিছুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মাহমুদ আশরাফ মামুন, স্বেচ্ছা সেবক লীগের সাধারন সম্পাদক কামরুল হাসান সবুজ।

কেন্দ্রীয় ও বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের বাসা, রাজনৈতিক ও ব্যক্তিগত কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করে প্রার্থীরা নিজের অবস্থান তুলে ধরছেন। চূড়ান্ত মনোনয়ন যিনিই পাবেন তাকে বিজয়ী করার অঙ্গীকার করেছেন সকলে। তবে চূড়ান্ত প্রার্থী মনোনয়নে অধিকতর সতর্কতার আহ্বান জানিয়েছেন দলীয় নেতাকর্মীরা। তা না হলে বিগত নির্বাচনগুলোর মতো ভরাডুবির শঙ্কা তাদের।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা এবারের পৌর নির্বাচনকে দেখছেন চ্যালেঞ্জ হিসেবে। তারা মনে করেন বিগত নির্বাচনগুলোতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মনোনয়নে দলীয় নেতাকর্মী ও ভোটারদের ইচ্ছার প্রতিফলন হয়নি। ফলে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা শুধু পরাজিতই নয়, তাদের জামানতও বাজেয়াপ্ত হয়েছে। কিন্তু, মেয়র পদে কে হবেন শাসক দল আওয়ামী লীগের নৌকার মাঝি তা জানতে অপেক্ষা করতে হবে আরো কয়েকদিন। পৌর আ’লীগের সভাপতি ও দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী আনিছুর রহমান বলেন, ১৯৮৭ সাল থেকে আমি দলের জন্য কাজ করে চলেছি। দলীয় মনোনয়ন পেলে জয় পাবো আশা করছি। বিগত বছরগুলোতে এই পৌরসভার বিএনপি সমর্থিত মেয়ররা নাগরিকদের জন্য উল্লেখযোগ্য কিছুই করতে পারেননি। আমাকে মনোনয়ন দিলে জবাবদিহি মূলক এবং নাগরিক সুযোগ-সুবিধা জনগনের দোরগড়াই পৌছে দিতে অঙ্গিকারবদ্ধ। এছাড়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিলর থাকাকালে মসজিদ-মাদ্রাসা, মন্দিরসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে উন্নয়ন মূলক কাজ করেছি। পাশাপাশি করোনা কালিনসময়ে সর্বদা জনগনের পাশে থেকে সরকারী ও পৌরসভার বিভিন্ন খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছি। দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী কামরুল হাসান সবুজ বলেন, তিনি ঢাকায় অবস্থান করছেন। ইতিমধ্যে তিনি দলীয় মনোনয়ন তুলেছেন। তিনি দলীয় মনোনয়ন পাবেন বলে অত্যন্ত আশাবাদী। তফসিল অনুযায়ী নন্দীগ্রাম পৌরসভায় আগামী ৩০ জানুয়ারি ভোটগ্রহণ করা হবে। এর জন্য মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ৩১ ডিসেম্বর। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই আগামী ৩ জানুয়ারি। প্রার্থীতা প্রত্যাহার আগামী ১০ জানুয়ারি।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.