‘চলছে মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ ২০২০’র সেরা ২০ সুন্দরীর গ্রুমিং

১৬

শুরু হয়েছে ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ ২০২০’ বিউটি পেজেন্ট-এর গ্রুমিং পর্ব। ২০১৯ সালে প্রথম আসরের পর সমগ্র বিশ্বজুড়ে করোনা কালিন পরিস্থিতির জন্য ২০২০ সালের কার্যক্রম পিছিয়ে নিয়ে গত ১১ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিক ঘোষণার মাধ্যমে যাত্রা শুরু হয় ‘ফ্লোরা ব্যাংক মিস ইউনিভার্স ২০২০’ সালের বাংলাদেশ পর্বের কার্যক্রম। ইতিমধ্যে সেরা ২০ জন সুন্দরীর বাছাই শেষে তাদের গ্রুমিং চলছে।

চূড়ান্ত পর্বের বিচারকদের মাঝে এবার থাকছেন মডেল ও অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মীম। হসপিটালিটি পার্টনার রেডিসন হোটেল-এ চলাকালীন গ্রুমিং সেশনে প্রতিযোগীদের আত্মবিশ্বাস বাড়াতে আসেন এই তারকা। সময় দেন সেরা ২০ সুন্দরীকে, বিশদ আলাপচারিতায় প্রকাশ পায় প্রতিযোগীদের নিয়ে তাঁর আশা আর চিন্তাভাবনা। অনুপ্রেরণা যোগান প্রতিযোগীদের এবং উদ্বুদ্ধ করেন সামনে এগিয়ে যাওয়ার জন্য। তাদের নানান প্রশ্নের উত্তর দেন। গ্রুমিং সেশনে মীম তার নিজ অভিজ্ঞতা থেকে প্রতিযোগীদের বেশ কিছু পরামর্শ দেন এবং আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠার কৌশল শেখান।
প্রিয় মডেল ও অভিনেত্রীর সাথে দেখা ও কথা বলার কারণে প্রতিযোগীদের মাঝে বেশ উৎসাহ ও উৎফুল্লতা দেখা যায়।
প্রতিযোগীদের উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা দিতে গ্রুমিং সেশনে আরও যোগ দেন সাবেক মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ ২০১৯, শিরিন আক্তার শিলা। একই প্ল্যাটফর্মের একই পেজেন্টের সাবেক বিজয়ীকে নিজেদের সাথে দেখে উচ্ছ্বসিত হন সেরা ২০।

কেমন অভিজ্ঞতা ছিল শিলার, কিভাবে নিজেকে প্রতিযোগিতায় সেরা প্রমাণ করে মুকুট পান সেই গল্প শুনে সবার মাঝেই উচ্ছ্বাস, আনন্দ, উত্তেজনা ও আত্মবিশ্বাস যেন দ্বিগুণ পরিমাণে বেড়ে গেছে।
শিরিন আক্তার শিলা প্রতিযোগীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘এ ধরনের একটি বিউটি পেজেন্টে অংশগ্রহণ একটি চ্যালেঞ্জিং ব্যাপার। সবাইকে মানসিকভাবে নিজেকে প্রস্তুত রাখতে হবে যেকোনো অবস্থায় মানিয়ে চলার জন্য। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারে বিধিনিষেধ মেনে, মোবাইল ফোন-এর ব্যবহার কমিয়ে এনে নিজের প্রতি মনোযোগ দেয়ার সময় এখন।’
প্রাথমিক বিচারক হিসেবে প্রিয়তা ইফতেখার (মিস কালচার ওয়ার্ল্ডওয়াইড ২০১৮) যাদের নির্বাচন করেন সেই টপ ২০ জন আরেকবার গাইড হিসেবে তাকে কাছে পান। প্রিয়তা ইফতেখার গ্রুমিং পর্বে প্রতিযোগীদের সাথে বেশ কিছু বিষয় নিয়ে কথাবার্তা বলেন। নিজেকে চর্চা করে নিজের মধ্যকার আত্মবিশ্বাসকে জাগিয়ে তোলার অনুশাসন দেন তিনি। ভবিষ্যতেও যারা এই ধরনের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে চান তাঁদেরকে এখন থেকেই তৈরি হতে বলেন।

প্রতিষ্ঠিত তারকাদের সাথে কথা বলে, পরিচিত হয়ে এবং তাঁদের থেকে নানান বিষয়ে জানতে পেরে প্রতিযোগীরা আরো বেশি সুন্দরভাবে নিজেদের বিকাশ ঘটাতে পারবে, পারদর্শী হতে পারবে বলে আশা করেন আয়োজকরা। তাঁরা বলেন দৈনন্দিন প্রতিযোগীরা যেই প্রক্রিয়ায় মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন এতে করে নতুন কিছু শিখতে পারার অনেক সুযোগ রয়েছে।
আগামী ২০ মার্চ ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে জাতীয় পর্যায়ের চূড়ান্ত প্রতিযোগিতা। আগামী মে মাসে যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিতব্য ‘মিস ইউনিভার্স ২০২০’ প্রতিযোগীতার ৬৯তম মূলমঞ্চে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন ‘ফ্লোরা ব্যাংক মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ ২০২০’-এর মুকুটবিজয়ী।
মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের প্রধান স্পন্সর ফ্লোরা ব্যাংক, সহযোগী স্পন্সর রেজুভা, সহযোগী পার্টনার আরটিভি, মেকওভার পার্টনার পারসোনা, পিআর পার্টনার নর্থব্রুক কনসালটেন্টস এবং হসপিটালিটি পার্টনার রেডিসন ব্লু ঢাকা।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.