সাত কলেজের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে জরুরি সভা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত সাত কলেজের চলমান আন্দোলন বিষয়ে শিগগিরই সিদ্ধান্ত জানানো হবে বলে জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। বুধবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা এম এ খায়ের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি অনলাইনে সংশ্লিষ্টদের সাথে সভা করছেন। সন্ধ্যা ৬টায় সভা হওয়ার কথা থাকলেও শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের কারণে দুপুরেই শুরু হয়েছে। এই বিষয়ে শিগগিরই সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

ভার্চুয়ালি এ সভায় যুক্ত আছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, মাধ্যমিক উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো: মাহবুব হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো: আখতারুজ্জামান, উপ-ভিসি (শিক্ষা) ও সাত কলেজের প্রধান সমন্বয়কারী অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল ও সাত কলেজের সমন্বয়কসহ কলেজের অধ্যক্ষরা।
এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের পরীক্ষাও স্থগিত করা হয়। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির ঘোষণার এক দিন পর মঙ্গলবার এই ঘোষণা দেয়া হয়।

এ তথ্য নিশ্চিত করেন সাত কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম তদারকির দায়িত্বপ্রাপ্ত (ফোকাল পয়েন্ট) ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ আই কে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার বলেন, সাত কলেজের সব পরীক্ষা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললে পরে এসব পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
জানা যায়, সাত কলেজের প্রধান সমন্বয়ক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি (শিক্ষা) অধ্যাপক এ এস এস মাকসুদ কামাল মঙ্গলবার কলেজগুলোর অধ্যক্ষ ও সংশ্লিষ্ট তিনজন ডিনকে নিয়ে সভা করেন। সভায় পরীক্ষা স্থগিতের এই সিদ্ধান্ত হয়।
এর আগের দিন শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‌পবিত্র ঈদুল ফিতরের পর ২৪ মে থেকে দেশের সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আবারো শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু হবে। এর আগে ১৭ মে আবাসিক হলগুলো খুলবে। খোলার আগে কোনো পরীক্ষা হবে না। যেসব বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা ও হল খোলার ঘোষণা দিয়েছিল, সেই সিদ্ধান্তও বাতিল হবে। অবশ্য অনলাইনে ক্লাস চলবে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.