বাবুল হাসানকে বাঁচাতে সাহায্য করুন

১৩২

আব্দুল ওয়াদুদ ।।  বগুড়ার শেরপুরের বাবুল হাসান (২২) নামের এক যুবক  (Sensory motor axonal polynuropathy) নামে জটিল দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত। টাকার অভাবে ধুকে ধুকে বাড়ী মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছে। ছেলেটির বাবা একজন গরীব কৃষক তার পক্ষে ছেলের চিকিৎসা খরচ যোগান দেওয়া অসম্ভব হয়ে পড়েছে। আক্রান্ত যুবক বগুড়া জেলার শেরপুর উপজেলার শাহবন্দেগি ইউনিয়নের ঘোলাগাড়ী কলোনী গ্রামের আবুল কালামের ছেলে বাবুল হাসান। দুই ভাই বোনের মধ্যে বাবুল হাসান বড়।

জানাযায়,  ২০১২ সাল থেকে তার শরীরে দূরারোগ্য ব্যাধিটি বাসা বাঁধে দুটি পা চিকন হতে শুরু করে। ধীরে ধীরে হাত পায়ের শক্তি হারিয়ে বর্তমানে সে অচল। ২০১৫ সাল থেকে কানাইকান্দর উচ্চ বিদ্যালয় নবম শ্রেণী পর্যন্ত লেখাপড়া করে। অচল হয়ে পড়ায় সে আর স্কুলে যেতে পারে না। গরিব বাবার সম্পত্তি বিক্রি করে অনেক চিকিৎসা করেছে। পূর্বে চিকিৎসা করা হলেও বর্তমানে অর্থাভাবে তার চিকিৎসা বন্ধ। ২০১৫ সালে মা মারা যায়, এতে করে তার জীবনে আরেক অন্ধকার বাসা বাধে। সে অন্যের সহায়তা ছাড়া নিজে নিজে কোন কিছুই করতে পারে না।  বর্তমানে ঘরবন্দি হয়ে পড়েছে।  সে পরিবারের কাছে বোঝা স্বরুপ জীবন-যাপন করছে। অভিশপ্ত এই জীবন থেকে মুক্তি পেতে চায় সে। সে পুনরায় তার আগের স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চায়। চিকিৎসার জন্য ঢাকা নিওরোমেডিসিন পিজি হাসপাতালে যেতে হবে। তাই সকলের নিকট আবেদন জানিয়েছেন।

আসুন,  আমরা প্রত্যেকেই নিজের অবস্থান থেকে একটু সাহায্যের মাধ্যমে একজন মানুষকে স্বাভাবিক জীবনে ফেরানোর চেষ্টা করতে পারি। দয়া করে ছেলেটির চিকিৎসার জন্য যে যতটুকু পারি যেমন করে পারি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়। হয়তো আল্লাহর রহমতে ছেলেটি প্রাণ বেঁচে যেতে পারে আমরাতো অনেক টাকা খরচ করে থাকি তাই নিজ অর্থয়নে যাই যা পারি ছেলেটি কে বাঁচাতে সাহায্য করি। সবাই দয়া করে আল্লাহর রহমতে এগিয়ে আসুন।   পারসোনাল- 01740584927 (বিকাশ ও নগদ) নিজ-০১৭০৬৬৩২৮৩১
(বিকাশ ও নগদ)

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.