ওয়াজ করতে গিয়ে গণধোলাই খেলেন নকল বক্তা (ভিডিও)

৩৭

মাহফিলে ওয়াজ করছেন প্রধান বক্তা। বয়ানের মাঝে শ্রোতাদের মনে তাঁর পরিচয় নিয়ে সন্দেহ জাগে। স্টেজে বসা একজন টান দিয়ে মুখের রুমাল সরাতেই বেরিয়ে এলো আসল পরিচয় বক্তার মুখে দাড়ি নেই। পরে গণপিটুনির শিকার হয়ে এলাকা ছাড়তে হয় তাকে।
সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ফিংড়ী ইউনিয়নের বালিথা ঈদগাহের পশ্চিম পাশে আবুল ফারহা সিদ্দিকীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানা ময়দানে গত শুক্রবার (১২ ফেব্রুয়ারি) ২৫তম বার্ষিক ওয়াজ মাহফিলে এই ঘটনা ঘটে।

দ্বিতীয় দিনে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেওয়ার কথা ছিল ঢাকার আলহাজ হাফেজ মাওলানা মো আবুল কালাম আজাদীর। অথচ সেখানে বক্তব্য দেন এক ভুয়া হুজুর। তার বক্তব্যে শ্রোতাদের সন্দেহ হলে স্থানীয় চেয়ারম্যান মঞ্চে উঠে জানতে চাইলে সে কৌশলে ভোঁ-দৌড় দিয়ে আত্মরক্ষা করেন। ততক্ষণে উপস্থিত শ্রোতারা হুজুরের ভণ্ডামি ধরতে হুজুরের মুখের মাস্ক খুললে হুজুর ভুয়া প্রমাণিত হয়।

এ সময় উপস্থিত জনতা তাকে গণধোলাই দেয়। এ বিষয়ে মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষ মো. মজিবুর রহমানের সহধর্মিণী সালেহা খাতুনের (বেদেনী) কাছে জানতে চাইলে তিনি ৫ মিনিট পরে কথা বলবেন বলে জানান। পরে ফোন দিয়েও স্থানীয় সাংবাদিকরা সালেহা খাতুন বেদেনীর সঙ্গে কথা বলতে পারেননি। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চিত্রজগতের নায়ক মেহেদী হাসান মেহেদী। চিত্রনায়ক আমির সিরাজী উপস্থিত জনতাকে বলেন, প্রিন্টারে ভুল হাওয়ায় হুজুরের নাম ভুল করেছে। সে চিত্রজগতের একজন মেকআপম্যান, ভালো একজন এডিটর ম্যান এবং হাফেজ।
এ ঘটনার ভিডিও সাতক্ষীরার সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে। ক্ষোভে ফেটে পড়েন আলেমরাও। ওয়াজ মাহফিল নিয়ে এ ধরনের ভণ্ডামির তীব্র প্রতিবাদ জানান মুসল্লিরা।  ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.