‘জ্বিনের ইচ্ছায়’ এক শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

১৬

আব্দুল্লাহ আল মামুন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ : 
চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার নবাবগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বেলের গাছ থেকে জুনায়েদ সিদ্দিক (১৭) নামের এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে সদর মডেল থানার পুলিশ। ১৩ ফেব্রুয়ারি শনিবার সকালে পুলিশের উপস্থিতিতে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সহযোগিতায় এ লাশ উদ্ধার করা হয়। ওই ছাত্র ‘জ্বিনের ইচ্ছায়’ আত্মহত্যা করেছেন বলে তার লিখে যাওয়া একটি চিরকুট পেয়েছে পুলিশ।

জুনায়েদ নওগাঁ জেলার পৌরশা উপজেলার গোপালগঞ্জ গ্রামের মোঃ লুৎফুর রহমান ছেলে। সে পাঠানপাড়া আর্দশ হাফেজিয়া মাদ্রাসার ছাত্র এবং অত্র এলাকার একটি ওয়াক্তিয়া মসজিদে ইমামতি করতেন।

অত্র মাদ্রাসার পরিচালক সাবেক মেয়র আলহাজ্ব মাওলানা আব্দুল মতিন বলেন, গত রাত ৩ টার সময় তাঁর হাফেজিয়া মাদ্রাসার ছাত্ররা পড়ার জন্য ঘুম থেকে উঠলে জুনায়েদ সিদ্দিক কে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি করতে শুরু করে। মাদ্রাসার কোন জায়গায় না পেয়ে জুনায়েদের গ্রামের বাড়িতে সকালে ফোন করে জুনায়েদ বাসায় গিয়েছে কি না-জানতে চাইলে। বাড়ি থেকে জানাই জুনায়েদ বাসায় আসেনি। পরিচালক আরও বলেন, আমি সকালে বাজার করতে গিয়েছিলাম আমাকে কল করে জানানো হয় জুনায়েদ মাদ্রাসার পেছনে নবাবগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বেলের গাছে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলছে। ঘটনার কথা শুনে তাৎক্ষণিক আমি সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোজাফফর হোসেনকে ফোন করে বিষয়টি অবহিত করি।

সদর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোজাফফর হোসেন বলেন, ঘটনাটি আমাকে ফোন করে জানানো হলে তাৎক্ষণিক ফায়ার সার্ভিসের কর্মীসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় এবং জুনায়েদ সিদ্দিক এর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করি। উদ্ধারকৃত লাশের দেহ তল্লাসি করলে কমড় থেকে একটি চিঠি পাওয়া যায় এবং চিঠিতে লিখা আছে “আমার জীবনের শেষ কথা, আমি যা করেছি আমার জ্বিনের জন্য।” চিঠি পড়ে আমাদের ধারণা এটি আত্মহত্যা। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.