হত্যা মামলায় বগুড়ার ইউপি চেয়ারম্যান গাইবান্ধার কারাগারে

২৮

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ফুলপুকুরিয়া এলাকায় এক যুকক হত্যা মামলায় বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার বিহার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মহিদুল ইসলামের জামিন না মঞ্জুর করা হয়েছে। রোববার দুপুরে গাইবান্ধা আদালতে হত্যা মামলায় জামিন নিতে গেলে বিচারক মহিদুলকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। কারাগারে পাঠানোর এই নির্দেশ দেন গাইবান্ধা জ্যেষ্ঠ জেলা ও দায়রা জজ দিলীপ কুমার ভৌমিক।

কারাগারে পাঠানোর বিষয় নিশ্চিত করেছেন গাইবান্ধা আদালতের পরিদর্শক (কোর্ট) তোফাজ্জাল হোসেন। তিনি বলেন, গাইবান্ধা জেলা ও দায়রা জজ আদালতে বিহার ইউপি চেয়ারম্যান মহিদুল ইসলামের হাজিরা ছিল। হাজিরায় জামিনের আবেদন করলে না মঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠিয়ে দেন বিচারক।
মহিদুল এর আগে ওই মামলায় জামিনে ছিলেন। মামলা তদন্ত করছে গাইবান্ধা পুলিশের বিশেষ ইউনিট পিবিআই।

প্রসঙ্গত, গত ২২ ডিসেম্বর আদালতে হাজিরা দিয়ে সকাল থেকে নিখোঁজ থাকার পর সন্ধ্যায় গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ফুলপুকুরিয়া এলাকা থেকে বগুড়ার শিবগঞ্জের বাসিন্দা শিমুলের (৩০) লাশ উদ্ধার করা হয়।
শিমুলের ভাই ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য রায়হান জানান, শিমুল সকালে বগুড়ার আদালতে হাজিরা দিতে যায়। এরপর থেকে তার আর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। সোমবার সন্ধ্যার দিকে তিনি মরদেহ উদ্ধারের সন্ধান পান।
ওই সময় রায়হানের বরাতে বগুড়া শিবগঞ্জ থানার ওসি এসএম বদিউজ্জামান জানান, শিমুল আদালতে সাক্ষী দিয়ে আসার পথে টেংরা বাজার এলাকায় বিহার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মহিদুলের সঙ্গে দেখা হয়। পরে মহিদুল শিমুলকে নিয়ে যান। এরপর সন্ধ্যার দিকে তার মৃতদেহ পাওয়ার খবর আসে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.