দুই মেয়র প্রার্থীর সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ আহত ৩, দুই এজেন্ট আটক

সোনাইমুড়ী পৌরসভা নির্বাচন

১৩

সোনাইমুড়ী পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলাকালে দুই মেয়র প্রার্থীর মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, সংঘর্ষ, ককটেল বিষ্ফোরণ ও গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে। এতে মোহন নামের এক যুবক গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ৩ জন আহত হয়েছেন। অপরদিকে ভোটারদের জোর পূর্বক নির্দিষ্ট প্রতীকে ভোট দিতে বাধ্য করায় দুই এজেন্টকে আটক করেছে পুলিশ। আজ রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সোনাইমুড়ী পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের আলোক পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- সোনাইমুড়ী উপজেলার বাহারকুট গ্রামের আবদুল হকের ছেলে মোহন (১৮), আমিরাবাদ এলাকার আবুল হাসেমের ছেলে সালাউদ্দিন (২৭), উলুপাড়া এলাকার স্বপনের ছেলে মনির (২২)। স্থানীয়রা জানায়, ভোটকেন্দ্রের বাইরে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকরা সহিংসতা ঘটনা ঘটায়। তারা একটি ককটেল বিস্ফোরণ করে কিছু ভোটারদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় এবং গুলিবর্ষণ করে। এ সময় মোহন নামে এক যুবক গুলিবিদ্ধ হয়।

জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. আলমগীর হোসেন জানান, কেন্দ্রের বাইরে বিচ্ছিন্নভাবে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে আছে। নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) ডা. সৈয়দ মহিউদ্দিন আব্দুল আজিম জানান, সোনাইমুড়ীতে পৌরসভা নির্বাচনে সহিংসতায় মোহন নামে এক যুবকের বাম পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়েছে। দুপুর ১২টার দিকে তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
উল্লেখ্য, পৌরসভার মোট ৯টি ওয়ার্ডের ৯টি কেন্দ্রে রবিবার সকাল থেকে ভোট গ্রহণ চলছে। পৌরসভাটিতে মোট ভোটার সংখ্যা ২৫ হাজার ২৩২ জন, যার মধ্যে পুরুষ ১২ হাজার ৮৩৬ ও নারী ভোটার রয়েছে ১২ হাজার ৩৯৬ জন।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.