মাদারীপুরে খাঁটি মধু উৎপাদনের লক্ষ্যে মধুকোষের মোড়ক উন্মোচন করলেন জেলা প্রশাসক

মাদারীপুর প্রতিনিধি : 
জেলা প্রশাসনের পৃষ্ঠপোষকতা, খাঁটি মধুর নিশ্চয়তা, এই স্লোগানে মাদারীপুরে খাঁটি মধু উৎপাদনের লক্ষ্যে মুধ কোষের মোড়ক উন্মোচক করা হয়েছে। মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন রবিবার সকালে সদর উপজেলার দুধখালী ইউনিয়নের চন্ডিবর্দি বড় বাড়ির ঘাট এলাকায় জিসান-জিহাদ-বরকত এর মৌ খামারে এই মধুকোষের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। জেলা প্রশাসনের অনুপ্রেরণায় মাদারীপুরে ভেজাল মুক্ত খাঁটি মধু উৎপাদন করা হবে। যা বিএসটিআই এর মান নিয়ন্ত্রণে এই মধু প্রকৃত মৌ চাষিদের কাছ থেকে সংগ্রহ করে এবং প্রক্রিয়াজাত করণ করে দেশে বিদেশে রপ্তানি করা হবে।

হানি বাংলাদেশের স্বত্ত্বাধিকারী আনোয়ার সরদার জানান, মাদারীপুরে শতাধিক মৌ খামার রয়েছে । প্রতিটি খামারে প্রায় ১৫০-২০০টি মৌ বক্স আছে। এতে প্রতি বছর ১৫০ টন মধু উৎপাদন হয়। যা দেশের বিভিন্ন স্থানে আমরা প্রক্রিয়াজাতকরণ করে সরবরাহ করে থাকি। দেশের বিভিন্ন স্থানের মৌ চাষি মাদারীপুরে এসে তারা মৌ চাষ করে । কারণ এখানে পৌষ ও মাঘ মাষে ধনিয়া ও কালোজিরার চাষ হয়। আর এই ধনিয়া ও কালোজিরার মধু সবচেয়ে বেশি ভালো ।
মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ড.রহিমা খাতুন বলেন, মাদারীপুরে মধুকোষের বেশ সম্ভাবনা রয়েছে, মধু আহরনের ব্যবস্হাকে কিভাবে আরো প্রসারিত করা যায় এবং মৌ-চাষীদের আমরা সব ধরনের সহয়তা প্রদানের ব্যvবসv করবো। পাশাপাশি চাষিদের দেড় কিলোমিটার অন্তর অন্তর মৌ-চাষের বক্স বসানো এবং ভেজালমুক্ত খাটি মধু উৎপাদন ও বাজারজাত করার আহবান জানান।
মধুকোষের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে  উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক খায়রুল আলম সুমন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর উপ পরিচালক ড. মোয়াজ্জেম হোসেন, মাদারীপুর শিল্প নগরী সম্প্রসারণ প্রকল্পের খাঁটি মধু উৎপাদনের লক্ষ্যে পরিচালক মোঃ ইউসুফ আলী মোল্লা, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, উদ্যোক্তা, মৌ চাষিসহ অন্যরা।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.