অপূর্ণতা

১১

অপূর্ণতা
-নাজমুল হাসান পলাশ

বাঁধন হারা এ জীবনটাকে
বাঁধতে প্রেমের বাহু ডোরে,
সানন্দ চিত্তে এলে কাছে
বসলে পাশে জীবন রথে।
শক্ত করে ধরলে হাত
রাখলে মোরে আলগা করি।
সর্বত্র সাথে রয়েছে তবু
কোথাও যেন পাইনা আমি।
প্রদীপ হয়ে এলে তুমি
শিখা হয়ে জ্বললে না
আশা হয়ে বাধলে বাসা
আস্থার নীড় গড়লে না।
রানী রূপে উদয় হলে
রাজ আসনে বসলে না
সখী হয়ে কাড়লে হৃদয়
বিজয়িনীর আসন পুরলে না।
রতি হয়ে এলে মনে
সতীর ঘর নিলে না
প্রিয় হয়ে এলে প্রেমে
বধূর চুম্বন আঁকিলে না ।
শিল্পী হয়ে গাইলে গান
শ্রোতা হয়ে শুনলে না,
ব্যথা দেয়ার দোসর হলে
সুখের ভেলায় তুললে না।
অসীমা হয়ে রইলে সুদূর
সীমারেখা পারে এলে না,
স্বপনে জড়ালে মধুর আলিঙ্গনে
জাগরণে একটু ছুঁলে না।
আলাপ করলে নিবিড় মনে
আলোচনায় কভু বসলে না,
আমোদে সদা রাখলে মাতি
আনন্দের পরশ মাখলে না।
সুন্দরের জালে জড়ালে মোরে
সৌন্দর্য়ের চাদরে মোড়ালে না,
অট্টো হাসিতে ভরালে প্রাণ
মুচকি হাসিতে জুড়ালে না।
রইলে সদা হাতটি ধরি
সাথের সাথী হলে না,
প্রেমের কথা বললে শুধু
মনের কথা বললে না।
পাশাপাশি তবু বহু দূরে
পূর্ণতায় ভরা মোর নি:সঙ্গতা,
তুমি আছো তবু যেন নেই
ঘুচিল না তাই এ অপূর্ণতা।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.