বাগেরহাটে পৌছেছে ৪৮ হাজার ডোজ করোনা টিকা

॥ আল আমিন খান সুমন,বাগেরহাট ॥
প্রথম ধাপে বাগেরহাট জেলার জন্য বরাদ্দকৃত ৪ হাজার ৮‘শ ভায়াল (বোতল) অর্থ্যাৎ ৪৮ হাজার ডোজ টিকা বাগেরহাটে পৌছেছে। রবিবার (৩১ জানুয়ারি) দুপুর ২টা ত্রিশ মিনিটে সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে টিকা বহনের জন্য ব্যবহৃত একটি বিশেষ গাড়িতে করে এই টিকা আসে। পরে বাগেরহাটের সিভিল সার্জন ডা. ডা. কেএম হুমায়ুন কবির প্রয়োজনীয় পরীক্ষা শেষে টিকা গ্রহন করেন। এসময়, বাগেরহাটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক খন্দোকার মোমাম্মাদ রিজাউল করিম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমানসহ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।৭ ফেব্রুয়ারি থেকে নিবন্ধনভুক্ত ব্যক্তিদের টিকা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডা. কেএম হুমায়ুন কবির।

টিকা গ্রহন শেষে সিভিল সার্জন ডা. কেএম হুমায়ুন কবির সাংবাদিকদের বলেন, প্রথম ধাপে বাগেরহাটের জন্য বরাদ্দকৃত ৪৮ হাজার ডোজ টিকা আমরা বুঝে পেয়েছি। টিকা গুলো যে তাপমাত্রায় (২ থেকে ৮ডিগ্রি)থাকার কথা ছিল সেই তাপমাত্রায় রয়েছে। ভ্যাকসিনগুলোর গুনগতমান ভাল। আমরা পূর্ব থেকে নিবন্ধনভুক্ত রোগীদেরকে ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে টিকা প্রদান শুরু করব। এক্ষেত্রে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে নিবন্ধনভুক্ত ব্যক্তিদের মুঠোফোনে এসএমএস পাঠানো হবে। ওই এসএমএসে ভ্যাকসিন দেওয়ার তারিখ, সময় ও স্থান নির্দিষ্ট করে দেওয়া থাকবে। ওই এসএমএস নিয়ে আসলে আমাদের টিকাদান কর্মীরা তার টিকাদান সম্পূর্ণ করবে।
তিনি আরও বলেন, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী প্রথমধাপে সরকারি-বেসরকারি স্বাস্থ্যকর্মী, জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী, মুক্তিযোদ্ধা, গনমাধ্যমকর্মী, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, পুলিশ সদস্য, পয়নিস্কাশনকর্মীসহ বিভিন্ন পেশাজীবীদের করোনা টিকা প্রদান করা হবে। বাগেরহাট জেলা এই ধরণের প্রায় ১৫ হাজার মানুষ রয়েছে। আমরা ইতোমধ্যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পাঠানো ছক অনুযায়ী প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে তালিকা তৈরি করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে পাঠিয়েছি।টিকা প্রদানের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ৮টি, সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে ১টি, ৮টি উপজেলায় ২টি করে, ৭৫টি ইউনিয়নে একটি করে মোট ১‘শ ২টি টিম প্রস্তুত করা হয়েছে। প্রতিটি টিমে টিকাদানে অভিজ্ঞ ২জন স্বাস্থ্য কর্মী ও চার জন স্বেচ্ছাসেবক রয়েছে। এছাড়া টিকা গ্রহনের পরে তাৎক্ষনিক কোন সমস্যা হলে সমাধানের জন্য ৭ সদস্য বিশিষ্ট এ্যাডভান্স ইভেন্টস ফলোয়িং ইমুউনাইজেশন ম্যানেজমেন্ট (এইএফআই) টিম গঠন করা হয়েছে। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী প্রথম ধাপের টিকাগুলো হাসপাতালে দেওয়া হবে বলে জানান সিভিল সার্জন ডা. কে এম হুমায়ুন কবির।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.