ক্ষতিপূরণ ছাড়াই বসতভিটা উচ্ছেদের অভিযোগ

আরিফুর রহমান মাদারীপুর:
মাদারীপুরের শিবচরে হাইটেক পার্ক নির্মাণের জন্য প্রস্তাবিত স্থানে ক্ষতিপূরণ ছাড়াই স্থাপনা ও গাছপালা উচ্ছেদ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে শিবচর উপজেলার বড় কেশবপুর এলাকায় মানববন্ধন করেছে স্থানীয়রা। এদিকে এক শ্রেনির দালালচক্র নতুন নতুন ঘর বাড়ি ও গাছ লাগিয়ে অতিরিক্ত বিল তুলে নেয়ার পায়তারা করছে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার কুতুবপুর ও কাঠালবাড়ী ইউনিয়নের প্রায় ৭০ একর জমি নিয়ে হাইটেক পার্ক নির্মাণের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এ কাজের জন্য প্রথমে ৪ ধারা নোটিশ দিয়ে জমি অধিগ্রহনের প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার বিধান রয়েছে। কিন্তু ক্ষতিগ্রস্থদের কোন প্রকার ক্ষতি পূরণ ও নোটিশ না দিয়েই গত ১৮ জানুয়ারি এক সপ্তাহের মধ্যে স্থাপনা ভেঙ্গে ফেলার নির্দেশনা দেয় জেলা প্রশাসন। এ পর্যন্ত শতাধিক ঘরবাড়ি উচ্ছেদ করা হয়েছে। এতে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলো আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে।

ক্ষতিগ্রস্থরা জানান, আমরা বিভিন্ন সময় জমি জমা হারিয়েছি। এখন সরকার যদি ক্ষতিপূরণ ছাড়া উচ্ছেদ করে তাহলে যাবো কোথায়। নতুন ঘর-বাড়ি যদি কেউ তোলে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হোক। আমরা চাই সরকার প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্থদের ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা গ্রহন করুক। যদি ক্ষতি পূরণ দিতে নাই পারে তাহলে অন্য কোথাও তাদের প্রকল্প স্থাপন করুক।
শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আসাদুজ্জামান বলেন, এ স্থাপনাগুলো দিয়ে দালালচক্র পদ্মা সেতুর বিভিন্ন প্রকল্প থেকে টাকা উত্তোলন করে। তাই সরিয়ে নিতে সাতদিন সময় বেধে দিয়েছিলাম। ১০ দিনের মাথায় এসে অবৈধ স্থাপনাগুলো অপসারন শুরু করেছি। অনেকে নিজে থেকে ঘরবাড়ি সরিয়ে নিচ্ছে। এ ব্যাপারে মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন বলেন, অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হচ্ছে। পুরানো ঘরবাড়ি ও গাছপালা উচ্ছেদ করা হবে না। প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্থরা ক্ষতিপূরণ পাবেন।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.