‘দুর্নীতি সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ১২ তম’

১৩

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের (টিআই) দুর্নীতির ধারণা সূচকে আগের বছরের তুলনায় বাংলাদেশের অবনতি হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) অনলাইনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ২০২০ সালের সূচক প্রকাশ করেন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান।

প্রতিবছর বিশ্বজুড়ে দুর্নীতির ধারণা সূচক প্রকাশ করে থাকে বার্লিনভিত্তিক ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল (টিআই)। এরই ধারাবাহিকতায় এ বছরও প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সংস্থাটি। এ প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।
বার্লিনভিত্তিক সংস্থাটির ‘দুর্নীতির ধারণা সূচক (সিপিআই) ২০২০’ প্রকাশে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য তুলে ধরেন তিনি।
দুর্নীতির সূচকে ১৮০ দেশের তালিকার নিচের দিক থেকে বাংলাদেশ ১২তম। যেটি সিপিআই ২০১৯-এর তুলনায় দুই ধাপ নিচে নেমেছে। বিবিসি বাংলা এমন খবর দিয়েছে।
১০০-এর মধ্যে ৪৩ স্কোরকে গড় স্কোর হিসাবে নিয়ে সিপিআই ২০২০ অনুযায়ী বাংলাদেশের স্কোর ২৬, যা ২০১৮ ও ২০১৯-এর তুলনায় অপরিবর্তিত।

দুর্নীতির ধারণা সূচকে বাংলাদেশের এই অবস্থান হতাশাব্যঞ্জক বলে উল্লেখ করেছেন ইফতেখারুজ্জামান। তিনি বলেন, এ স্কোর অনুযায়ী বাংলাদেশে দুর্নীতির ব্যাপকতা এখনও উদ্বেগজনক।
এ ছাড়া এশীয় প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ৩১ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ চতুর্থ সর্বনিম্ন অবস্থানে। আর দক্ষিণ এশিয়ার আট দেশের মধ্যে আফগানিস্তানে কেবল বাংলাদেশের চেয়ে বেশি দুর্নীতি।
সূচক অনুযায়ী, দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে কম দুর্নীতি ভুটানে, দেশটির স্কোর ৬৮। ১৮০ দেশের মধ্যে তালিকার ওপর থেকে এ দেশটির অবস্থান ২৪তম।
৪০ স্কোর নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে ভারত। তালিকার ওপর থেকে নয়াদিল্লির অবস্থান ৮৬তম। ২০১৯ সালের তুলনায় ভারতের অবস্থান ছয় ধাপ এগিয়েছে।
আর বাংলাদেশের ঠিক আগেই পাকিস্তান। ৩১ স্কোর নিয়ে দেশটির অবস্থান ২০১৯ সালের চাইতে এক ধাপ পিছিয়েছে। তালিকার ওপর থেকে দেশটির অবস্থান ১২৪তম

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.