নন্দীগ্রামে স্বপ্নের ঘর পেল ১৫৬ গৃহহীন পরিবার

১১

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি :
মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উপহার হিসেবে বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলায় স্বপ্নের ঘর পেল ১৫৬ টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার। প্রধানমন্ত্রীর কাছে এমন উপহার পেয়ে আবেগে আপ্লুত ও উচ্ছ্বসিত হয়ে পড়েছেন এসব পরিবারের সদস্যরা।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) গণভবন থেকে সারা দেশে একযোগে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এসব বাড়ি হস্তান্তরের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় বাড়ি পাওয়া ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের সদস্যরা উপজেলা অডিটোরিয়ামে অনলাইনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যোগ দেন। এরপরই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা. শারমিন আখতার সুবিধাভোগীদের হাতে ঘরের চাবি ও জমির দলিল তুলে দেন। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল আশরাফ জিন্নাহ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) নুরুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান দুলাল চন্দ্র মহন্ত, প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার আবু তাহেরসহ সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
জানা গেছে, মুজিববর্ষে আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর অধীনে নন্দীগ্রাম উপজেলায় ঘর পেলেন ১৫৬ টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার। প্রতিটি ঘর নির্মাণে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা। এই টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছে দুটি রুম, একটি টয়লেট, একটি স্টোর রুম ও বারান্দা। চারদিকে ইটের দেয়াল এবং ওপরে সবুজ রঙের টিনের ছাদ রয়েছে। দুই শতাংশ খাস জমির ওপর এসব বাড়ি নির্মাণ করা হয়। ভূমিহীনদের দুই শতক জমির দলিল, নামজারি, জমির মালিকানা এবং ঘরের চাবি দেওয়া হয়।
উপজেলার গোছন গ্রামের ষাটোর্ধ্ব বৃদ্ধা আমেনা বিবি বলেন, হামি স্বপ্নেও ভাবিনি সরকার হামাক পাকা ঘর দিবি। ঘর প্যায়া হামরা খুশি হচি। শেখের বেটি হামাকেরক বড় উপকার করলো।
এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা. শারমিন আখতার বলেন, মুজিববর্ষে বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ ঘোষণা দিয়েছেন। এরই ধারাবাহিকতায় মুজিববর্ষে উপজেলায় ১৫৬ টি ভূমিহীন এবং গৃহহীন পরিবার গৃহ পেলেন।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.