1. zahersherpur@gmail.com : abu zaher Zaher : abu zaher Zaher
  2. Bijoybangla2008@gmail.com : bijoybangla :
  3. harezalbaki@gmail.com : Harez :
  4. mannansherpur81@gmail.com : mannan :
  5. wadut88@gmail.com : wadut :
কাজিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন - বিজয় বাংলা
বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৩৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
নন্দীগ্রামে ওয়ার্ড আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন শুরু বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় কেউ গৃহহীন থাকবে না — ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা.এনামুর রহমান কুষ্টিয়ায় ঘর থেকে মা-শিশুর মরদেহ উদ্ধার কাউনিয়ায় ঋণের দায়ে গলায় ফাঁস দিয়ে কাঠ ব্যাবসায়ীর আত্মহত্যা সুনামগঞ্জে শিশু অপহরণের ঘটনায় নারীসহ ২জনকে কারাগারে প্রেরণ কুষ্টিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশ সদস্যের মৃত্যু নোয়াখালীতে ইয়াবাসহ পুলিশ কনস্টেবল ও ২ মাদক কারবারি আটক টলিউডের নায়িকাদের কপালে ভাঁজ ফেলে দিয়েছেন বাংলাদেশের তিন অভিনেত্রী বাংলাদেশ-কুয়েত দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতার রোডম্যাপ তৈরির প্রস্তাব সুয়ারেসের জোড়া গোলে অ্যাতলেতিকোর রোমাঞ্চকর জয় করোনা: বিশ্বে মোট শনাক্ত ২৩ কোটি ৩ লাখ বগুড়ায় বাউল শিল্পীর মাথা ন্যাড়া করায় ৩ মাতব্বর গ্রেপ্তার শেরপুরে ‘দালালের অফিস’ উচ্ছেদ, সরকারি জায়গা উদ্ধার কাজিপুরের চালিতাডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান    প্রার্থী শাহীনের উদ্যোগে মাস্ক বিতরণ নাটকীয় জয় মুস্তাফিজের রাজস্থানের জাতিসংঘ অধিবেশনের প্রথম দিনেই যোগ দিলেন প্রধানমন্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ নাইমুল আবরারের মৃত্যুতে ১০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে রুল বগুড়ায় লালু ও মোশারফকে জেলা বিএনপির অভিনন্দন শিবগঞ্জে গরু চুরির অভিযোগে নারী ট্রাক মালিক গ্রেফতার

কাজিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন

  • সর্বশেষ সংস্করণ : সোমবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৪২ বার দেখা হয়েছে
।। টি এম কামাল ।।  যমুনার পানি কমতে শুরু করেছে। সিরাজগঞ্জের কাজিপুরের চরাঞ্চলের নাটুয়াপাড়া রক্ষা বাঁধে ধসসহ নানা স্থানে ভাঙন এবং কয়েকটি সেতুর দু পাশে ধসে পড়া সহ ভেঙে পড়ার আশাংকা দেখা দিয়েছে। নাটুয়াপাড়া রক্ষা বাঁধে ধস ঠেকাতে ও সেতুর ধস ঠেকাতে স্থানীয় জনগন, উপজেলা পরিষদ, জনপ্রতি আপ্রান চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।
এদিকে চরাঞ্চলের তিনদিনে নাটুয়ারপাড়া রক্ষা বাধে ৭০ ফুট ধসে পড়েছে। ভাঙন শুরু হয়েছে খাসরাজবাড়ি ইউনিয়নের সানবান্দা এলাকায়। চরগিরিশ ইউনিয়নের চর ডগলাসে, পীরের চর সেতু ও মনসুরনগর ইউনিয়নের দুটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার তিনটি সেতুর দুপাশে ধসে গেছে। বিশেষ করে নাটুয়ারপাড়া রক্ষাবাধে ধস দেখা দেয়ায় আতঙ্কে রয়েছে হাজারো মানুষ । ঠিক তখনই চরাঞ্চলের বন্যা কবলিত মানুষের দুর্ভোগ লাগবে করনীয় নির্ধারনে ছুটে চলে আসেন কাজিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ ও উপজেলা চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান সিরাজী। সিরাজগঞ্জ-১ কাজিপুরে সাংসদ প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয় এর দিক নির্দেশনা ও সহযোগিতায় খলিলুর রহমান সিরাজীর ব্যক্তিগত উদ্যোগে মনসুর নগর ইউনিয়নের মাজনাবাড়ি আব্দুর রাজ্জাক মাস্টারের বাড়ি সংলগ্ন সেতুর ধস ও ভাংগন রোধে ২০০০ ব্যাগ বালুর বস্তা, মাজনাবাড়ি স্কুলের দক্ষিণের সেতুর ধস ঠেকাতে প্রায় ১০০০ বস্তা, শালদহ পুরান বাজার রাস্তায় কালভার্টে ধস ঠেকাতে ৫০০ বস্তা, চরগিরিস ইউনিয়নের ডগলাস মোড়ে সেতুর ও রঘুনাথ পীরের চর সেতুর ধস ঠেকাতে প্রায় ১২০০ বস্তা উপজেলা চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে আজ পর্যন্ত মেরামতের স্থানীয় ভাবে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এতে করে চরের জনগণের মাঝে আশার সঞ্চার হয়েছে।
ইতোমধ্যে নাটুয়ার পাড়া রক্ষা বাঁধে ধস ঠেকাতে কাজিপুরে সাংসদ জয়ের সহযোগিতায় ১২০০০ জিও ব্যাগ এবং পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহায়তায় ২/ ৯/ ২১ পর্যন্ত ৪০০০ জিওব্যাগ ফেলা হচ্ছে। এ দিকে প্রতিটি কাজের শ্রমিক খরচ সহ আনুষঙ্গিক খরচ করে যাচ্ছেন কাজিপুরে উপজেলা চেয়ারম্যান। প্রতিটি ইউনিয়নের সেতুর ধস ও নাটুয়াপাড়া রক্ষা বাঁধের ধস ঠেকাতে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী, জনপ্রতি বিশেষ করে ইউপি সদস্যসহ স্থানীয় জনগন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। আজ রোববার পর্যন্ত সরজমিন গিয়ে এ চিত্র চোখে পড়ে। মাজনাবাড়ি গ্রামে ধসে পড়া সেতুর সন্নিকটে বসবাসকারী রাসেল শেখ বলেন, এমপি জয় সাহেব ও উপজেলা চেয়ারম্যান খলিল রহমান সিরাজী সাহেব উদ্যোগ না নিলে সেতুটি ভেঙে যেত। আর সেতু ভেঙে গেলে আমার সহ আরও কয়েকটি বাড়ি ভেসে যেত। তাদের কে ধন্যবাদ জানাই।
এদিকে ঘটনা ঘটার পর থেকেই খবর পেয়ে গত কয়েকদিন ধরে কাজিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান সিরাজী ভাঙন এবং ধসে যাওয়া স্থানগুলো পরিদর্শন করেন ও নানা পরামর্শ দেন। নাটুয়াপাড়া রক্ষা বাঁধ পরিদর্শন কালে তিনি জানান, বাঁধটি অত্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ কেননা বাঁধ হওয়ার ফলে বাঁধের উজানে ও ভাটিতে প্রায় দুইশ হেক্টর নদী ভাঙ্গনের কবলিত জমি আবাদি জমিতে পরিনত হয়েছে, শুধু তাই নয় বাঁধ হওয়ার ফলে নাটুয়াপাড়া অবস্থিত বসত ভিটাসহ পুলিশ ফাঁড়ি, স্কুল, কলেজ অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ঐতিহ্যবাহী নাটুয়াপাড়া হাটটি রক্ষা পেয়েছে। এলাকাবাসির দাবি প্রেক্ষিতে যে কোন মূল্যে বাঁধটি রক্ষা করতে চেষ্টা চালিয়ে যাবো। ধস ঠেকাতে আমরা উদ্যোগ নিয়েছি। আমরা যথারীতি চেষ্টাচালিয়ে যাচ্ছি। পাউবো’র সাথে কথা হয়েছে। তারাও দ্রুত কাজ শুরু করছে। এ বিষয়ে কাজিপুরের এম পি মহোদয় প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয় সার্বক্ষনিক সার্বিক সহযোগিতার করছেন বলে তিনি জানান।
আজ রোববার বন্যা কবলিত এলাকা নাটুয়ারপাড়া, চরগিরিশ ও মনসুর নগর ইউনিয়নে বিভিন্ন গ্রাম পরিদর্শন করেন কাজিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান সিরাজী। এসময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক ছাত্রনেতা পরান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলী আসলাম, নাটুয়ারপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরকার, চরগিরিশ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক বিএসসি, আওয়ামীলীগের অঙ্গ সংগঠনের নেতা হালিম, মামুন, অনু, রুবেল, তোজাম্মেল হক মাষ্টার, সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ বিজয় বাংলা
Theme Download From ThemesBazar.Com
RSS
Follow by Email