1. zahersherpur@gmail.com : abu zaher Zaher : abu zaher Zaher
  2. Bijoybangla2008@gmail.com : bijoybangla :
  3. harezalbaki@gmail.com : Harez :
  4. mannansherpur81@gmail.com : mannan :
  5. wadut88@gmail.com : wadut :
বাগেরহাটে একদিনেই তালাক-বিয়ে, অতপর ঘটক ও হবু স্বামী কারাগারে - বিজয় বাংলা
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:১০ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
মায়ের ওপর অভিমান করে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রের আত্মহত্যা নারিকেল দুধে চিকেন কারি বোচামের জালে বায়ার্নের সাত গোল কারিনার মতো দেখায় টাইগারকে, যা বললেন জ্যাকি স্থগিত ৪০তম বিসিএসের মৌখিক পরীক্ষা আজ থেকে চার ঘণ্টা সিএনজি ফিলিং স্টেশন বন্ধ যুক্তরাষ্ট্রে ৬৫ ঊর্ধ্বদের বুস্টার ডোজ টিসিবির ট্রাকে পেঁয়াজ মিলবে ৩০ টাকায় বান্দরবানে পর্যটকবাহী গাড়িতে সন্ত্রাসীদের গুলি, আহত ৫ কমিশনার অব প্রিজন আহমেদ ফুলহুর সাথে রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রয়াত মোহাম্মদ নাসিমের কবর জিয়ারত শাজাহানপুরে বাসের ধাক্কায় সেনা সদস্য নিহত শেরপুুরে ফুটবল খেলোকে কেন্দ্র করে মারপিট আহত-৪ শেরপুরে ভাতিজিকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় ছুরিকাঘাতে মৃত্যুর মুখে দুই চাচা সরকার পতন একদফা আন্দোলনের জন্য নেতাকর্মীদের প্রস্তুতি নেওয়ার আহবান-সাবেক এমপি লালুর কুষ্টিয়ায় কুখ্যাত মাদক সম্রাট শাহিন  আটক বাগেরহাটে ইউপি নির্বাচনে সহিংসতার আশঙ্কায় ভোটাররা তানোরে গৃহবধূকে উত্যাক্তের প্রতিবাদ করায় স্বামী শ্বশুড়ীকে মারধর এহসান গ্রুপের প্রতারকরা ধর্মব্যবসায়ী : মোমিন মেহেদী মধুখালীতে বজ্রপাত প্রতিরোধে তালবীজ রোপণ

বাগেরহাটে একদিনেই তালাক-বিয়ে, অতপর ঘটক ও হবু স্বামী কারাগারে

  • সর্বশেষ সংস্করণ : শুক্রবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১০ বার দেখা হয়েছে

।। বাগেরহাট প্রতিনিধি ।।
বাগেরহাটে বাক প্রতিবন্ধী এক তরুনীকে কৌশলে আটকে রেখে, জোরপূর্বক স্বামীকে তালাক দিয়ে অন্য পুরুষকে বিয়ে ও জোরপূর্বক শারীরিক সর্ম্পর্কের ঘটনা ঘটেছে। ১৯ বছর বয়সী প্রতিবন্ধী ওই নারীর মামলায় কথিত ঘটক ও হবু স্বামীকে গ্রেফতার করেছে বাগেরহাট মডেল থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার (০২ সেপ্টেম্বর) রাতে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গ্রেফতার দুইজনকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেষ দিয়েছেন আদালত। এর আগে বুধবার(০১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বাগেরহাট সদর উপজেলার যাত্রাপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন, কথিত ঘটক বাগেরহাট সদর উপজেলার পশ্চিমবাগ গ্রামের ইব্রাহিম মল্লিকের ছেলে আনছার মল্লিক (৬৪) এবং একই উপজেলার বেনেগাতি এলাকার ইফাজ উদ্দিনের ছেলে হবু বর ইদ্রিস সেখ (৫০)। গ্রেফতার ইদ্রিস এর আগেও দুটি বিয়ে করেছিলেন। দুই স্ত্রী-ই তাকে ছেড়ে চলে গেছেন্য।
মামলা সূত্রে জানা যায়, ২৯ আগস্ট সকালে ওই প্রতিবন্ধী তরুণী বাগেরহাট সদর উপজেলার গোটাপাড়া এলাকায় স্বামীর বাড়ি থেকে চিতলমারী উপজেলার নাসিরপুরে বাবার বাড়িতে যায়। পরবর্তীতে ৩০ আগস্ট বাবার বাড়ি থেকে ভ্যানযোগে বাগেরহাট সদর উপজেলার কান্দাপাড়া মামাতো বোনের বাসার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথিমধ্যে পশ্চিমবাগ এলাকায় ভ্যান থেকে নেমে পানি খেতে কথিত ঘটক আণছার মল্লিকের বাড়িতে প্রবেশ করে ওই তরুণী। সেখানে আনছার মল্লিকের স্ত্রী ও অজ্ঞাত এক নারী প্রতিবন্ধী তরুনীকে ভাল চাকুরী প্রদানসহ নানা প্রলোভন দিয়ে আটকে রাখেন। পরবর্তীতে ৩১ আগস্ট বিকেলে ঘটক ও তার সহযোগিরা একটি এ্যাম্বুলেন্সযোগে ওই নারীকে বাগেরহাট শহরে নিয়ে আসেন। একজন আইনজীবীর চেম্বারে নিয়ে জোরপূর্বক ওই নারীকে পূর্বে স্বামীকে তালাকের ঘোষনা দেওয়ায়। পরবর্তীতে একটি কাজী অফিসে নিয়ে ইদ্রিস সেখের সাথে রেজিষ্ট্রি বিয়ে দেওয়া হয়। রাতে বাড়িতে নিয়ে প্রতিবন্ধী নারীর সাথে জোরপূর্বক শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয় ইদ্রিস। বুধবার (০১ সেপ্টেম্বর) সকালে কৌশলে বিয়েসহ সব ধরণের কাজপত্র নিয়ে ইদ্রিসের বাড়ি থেকে পালিয়ে স্থানীয় এক নারী নেত্রীর বাড়িতে আশ্রয় নেয় প্রতিবন্ধী ওই তরুণী। পরবর্তীতে ওই নারী নেত্রী স্থানীয় চেয়ারম্যানকে খবর দেয়। পরবর্তীতে ওই তরুনীর পিতা ঘটক আনছার মল্লিক ও ইদ্রিস শেখসহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামী করে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন।
বাক প্রতিবন্ধী ওই তরুনীর বাবা বলেন, মেয়েটা ঠিকমত কথা বলতে পারে না। অনেকগুলো কথা বললে দুই একটি কথা বোঝা যায়। অসহায় এই মেয়ের সাথে যারা এত বড় অন্যায় করেছে, তাদের কঠিন শাস্তি দাবি করেন তিনি।
বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, নির্যাতিত তরুণীর ওই তরুনীর বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে নিয়মিত মামলা দায়ের করেছি। প্রধান দুই আসামীকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। আদালতে ১৬৪ ধারায় অপরাধের স্বীকারোক্তিমূলক দিয়েছে গ্রেফতারকৃতরা। এই ঘটনার সাথে জড়িত অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
ওসি আরও বলেন, ঘটনা পর্যালোচনা করে বুঝেছি, তালাক-বিয়ে সবকিছুই আসামীদের সাজানো নাটক। এসব কোন কিছুই মুসলিম আইন অনুযায়ী বৈধ হয়নি। ধর্ষণকে ওই বাক প্রতিবন্ধী নারীর কাছে গ্রহনযোগ্য করতে এসব নাটক সাজিয়েছেন তারা।

Alal Group

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ বিজয় বাংলা
Theme Download From ThemesBazar.Com
RSS
Follow by Email