বিএনপির ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’র সমাবেশে পুলিশের সঙ্গে বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষ

১৬

রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে আজ সকাল ১০টায় নেতাকর্মীরা জড়ো হতে থাকলে শুরুতেই পুলিশি বাধার মুখে পড়ে। এ সময় বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষ হয়। পরে আবারও সমাবেশ শুরু হয়।
দুই বছর আগে ২০১৮ সালের ৩০শে ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট ডাকাতি ও কারচুপির অভিযোগ আনে বিএনপি। এই দিনকে ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ হিসেবে পালন করে আসছে দলটি। সে অনুযায়ী আজ বেলা ১১টায় এই সমাবেশ শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সকাল ১০টা থেকেই প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপির নেতাকর্মীরা জড়ো হতে থাকেন।

বিএনপির এই সমাবেশকে ঘিরে প্রেস ক্লাবের আশপাশের এলাকায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। প্রেস ক্লাবের সামনের সড়কে বিএনপির নেতাকর্মীদের অবস্থানের কারণে ওই এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে সচিবালয়ের পশ্চিম সড়ক হয়ে বিএনপির নেতাকর্মীরা সমাবেশস্থলে আসতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। নেতাকর্মীরা বাধা অতিক্রম করে এগোতে চাইলে পুলিশ তাদের ওপর চড়াও হয়। এ সময় পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের লাঠিপেটা করে। একপর্যায়ে বিএনপির নেতাকর্মীরাও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুড়তে থাকেন। পরে সমাবেশস্থল থেকে মাইকে সবাইকে শান্ত থাকার আহ্বান জানানো হয়। মিনিট পাঁচেক পর পরিস্থিতি শান্ত হলে সমাবেশ আবারও শুরু হয়।
এ ব্যাপারে পুলিশের রমনা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার এস এম শামীম গণমাধ্যমকে জানান, জনগণের জানমালের নিরাপত্তায় এবং শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য যারা বিশৃঙ্খল তাদের শৃঙ্খলাবদ্ধ হতে বলেছি। এর বাইরে কিছুই হয়নি। এই ঘটনায় কাউকে আটক করা হয়নি বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.