নাচোলে সরকার দেওয়া বরাদ্দের টাকা না পেয়ে ক্যান্সার রোগির মানবেতর জীবন

0 2

একেএম.জিলানী, নাচোল (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) : নাচোলে সমাজকল্যাণ মন্ত্রনালয়ের বরাদ্দের ৫০হাজার টাকা ৩বছরেও পাননি এক ক্যান্সার আক্রান্ত রোগি। জটিল চিকিৎসার খরচ চালাতে পানছেনা ওই রোগির পরিবার। একমাত্র ছেলে সোহেলের আয় দিয়ে চলছে সংসার। বর্তমানে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন উপজেলার নেজামপুর ইউপির জগদইল গ্রামের আব্দুল ওহাব(৫০)।

উপজেলার নেজামপুর ইউনিয়নের জগদইল গ্রামের মৃত কলিমুদ্দীন মাষ্টারের ছেলে আব্দুল ওহাব জানান, তার ক্যান্সার ধরা পড়লে তিনি ঢাকা ক্যান্সার হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হন। সেখানে দীর্ঘ এক বছর বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের নিবিড় চিকিৎসায় প্রায় ১০/১২লাখ টাকা ব্যয়ে কিছুটা সুস্থ্য হন। বিগত ২৮ জুন/২০১৮ তারিখে গাজী মোহাম্মদ নুরুল কবির, (অতিরিক্ত সচিব) মহাপরিচালক, সমাজসেবা অধিদপ্তর স্বাক্ষরিত পপ১০০-৮৮১৬৩০১, অ/ঈ:৪৪৪০৪৩৩০০৫৪১১একাউন্টে পরিশোধযোগ্য ৫০হাজার টাকার সোনালী ব্যাংক আগারগাঁও শাখার একটি চেক ক্যান্সার আক্রান্ত রোগি আব্দুল ওহাবের নামে বরাদ্দ প্রদান করেন। আব্দুল ওহাব ওই চেকটি পান ২০১৯সালে।

ওই চেকটি আব্দুল ওহাব সোনালী ব্যাংক নাচোল শাখায় তার একাউন্টে জমা করতে গেলে সোনালী ব্যাংক নাচোল শাখার ততকালিন শাখা ব্যাবস্থাপক চেকটির মেয়াদ শেষ হয়েছে মর্মে আব্দুল ওহাবকে চেকটি ফেরত দেন। আব্দুল ওহাব ততক্ষনাৎ ওই চেকটি নাচোল উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা (ওইসময় জেলার দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা) ইমতিয়াজের নিকট জমা দেন। জেলা ও উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ে ঘুরে প্রায় ২বছর যাবত ক্যান্সার আক্রান্ত ওহাব চেকটির কোন কুলকিনারা করতে পারেননি। সমাজসেবা অধিদপ্তরের ৫০হাজার টাকার চেকটি পেয়ে বাঁচার আলো দেখেছিলেন ওহাব। বর্তমানে ক্যান্সার আক্রান্ত আব্দুল ওহাব চিকিৎসার টাকা না থাকায় ধুকে ধুকে মৃত্যুর প্রহর গুনছেন। প্রতিমাসে অনেক টাকার অসুধও সেবন করছেন তিনি।

এবিষয়ে নাচোল উপজেলা সমাজসোবা কর্মকর্তা আল গালিব এর নিকট যোগাযোগ করলে তিনি জেলা সমাজসেবা অফিসে খোঁজ নিতে বলেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জ সমাজসেবা জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক উম্মে কুলসুম এর দপ্তরে গেলে তিনি বিষয়টি শুনেন ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রদান করেন।

একবুক আশা নিয়ে আজও বেঁচে আছেন আব্দুল ওহাব। কখন ওই চেকের জন্য সমাজসেবা অফিসার তাকে ডাক দিবেন। এ প্রতিবেদকের নিকট হতাশা প্রকাশ করে বলেন, হয়ত একদিন চেকের আশায় চেয়ে থেকে মৃত্যুই তাকে ডাক দিবে।

Loading...