জীবন যুদ্ধে লড়াই করে ঘুরে দাঁড়িয়েছে কাউনিয়ার রিনা বেগম

বিনা রানী সহ ৫শত এতিম পরিবার

0 7

সারওয়ার আলম মুকুল,কাউনিয়া (রংপুর) প্রতিনিধি : অভাব আর দরিদ্রতা ছিল তাদের নিত্য সঙ্গি। সমাজের লাঞ্চনা আর বঞ্চনা ছিল তাদের চির চেনা। একবেলা খেয়ে অন্য বেলা না খেয়ে চলছে তাদের জীবন। স্বামী হারিয়ে সন্তানদের নিয়ে পরিবারের বোঝা হয়ে দাঁড়ায় তারা। নতুন জামা কাপড় ছিল তাদের কাছে স্বপ্নের মতো। জীবন যুদ্ধে লড়াই করে ঘুরে দাঁড়িয়েছে কাউনিয়া উপজেলার রিনা বেগম, বিনা রানী সহ এরকম ৫শত এতিম পরিবার।

সরেজমিনে কাউনিয়া উপজেলার হরিশ্বর তকিপল বাজার এলাকার রিনা বেগম এর সাথে কখা বলে জানা যায়, স্বামী মারা যাওয়ায় দুই সন্তানকে নিয়ে বিপাকে পড়েন তিনি। টুপির কাজ করে সন্তানদের ভরণপোষণ ও পড়াশোনার খরচ চালাতে না পেরে বাবার বাড়িতে আশ্রয় নেন। তারপর ইসলামিক রিলিফ সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেয়। ইসলামিক রিলিফ পাশে দাঁড়ানোর ফলে বন্ধ হয়ে যাওয়া সন্তানদের পড়াশোনা নিয়মিত করেন। ইমলামিক রিলিফ থেকে এককালীন ১৪ হাজার টাকা দিয়ে তিনি প্রথমে সেলাই মেশিন ক্রয় করেন। তারপর আয়ের টাকা দিয়ে সংসার চালান এবং পরবর্তীতে গাভী ক্রয় করেন। গাভীর দুধ বিক্রিতে আয়ের পথ সুগম হয়। বর্তমানে হাঁস মরগি পালন এবং টুপির ব্যবসা শুরু করেন। এছাড়াও ২ শতক ফসলী জমিও ক্রয় করেন। তিনি এখন ভালোভাবে সংসার চালাচ্ছেন।
নিজপাড়া গ্রামের মিনা রানী জানান, হৃদরোগে আক্রান্ত স্বামীর মৃত্যুতে তিনি দিশেহারা হয়ে পড়েন। পাড়া প্রতিবেশির সহায়তায় দুই সন্তানের পড়াশোনা ও ভরণপোষণ চালানোর সংগ্রাম ছিল নিত্যসঙ্গী। একপর্যায়ে ইসলাম রিলিফ থেকে প্রশিক্ষণ গ্রহণ শেষে এককালীন টাকা পেয়ে ২টি ছাগল ক্রয় করেন, অল্প দিনেই ১০টি ছাগল হয় এবং লালন পালন করে বিক্রি করেন। পরবতীতে লাভের অংশ দিয়ে টুপির কাজ শুরু করেন এবং ১টি গরু ক্রয় করেন। ব্যবসা বাড়ানোর পরিকল্পনায় ইসলামিক রিলিফ ও বিআরডিবি থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন এবং সেলাই মেশিনও ক্রয় করেছেন। এর পর আর তাকে পিছন ফিরে তাকাতে হয় নি। বড় ছেলে পিএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পায়, পরিবারটি এখন স্বাবলম্বী। তারা জানায় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ইসলামিক রিলিফের সহায়তায় ৫শত পরিবার এখন সাবলম্বীর পথে।

ইসলামিক রিলিফ সংস্থার এডভোকেসি ও যোগাযোগ সমন্বয়কারী সফিউল আযম বলেন,যুক্তরাজ্যভিত্তিক আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা ইসলামিক রিলিফ বাংলাদেশে ১৯৯১ সাল থেকে কাজ করছে। এতিম শিশুদের সুরক্ষা ও মর্যাদা বৃদ্ধিকল্পে আমরা কাজ করছি। ইসলামিক রিলিফ চায়, এসব এতিম পরিবার স্বাবলম্বী হবে এবং এতিম শিশুরা যাতে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে পারে এবং মতামত প্রদান ও নেতৃত্ব বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভ’মিকা রাখতে পারে। ইসলামিক রিলিফ কাউনিয়ায় ৫শত এতিম পরিবার কে আলোর পথ দেখিয়ে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না।