করোনা চিকিৎসায় এলি লিলি’র অ্যান্টিবডি জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন

0 11

যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা-এলি লিলি’র তৈরিকৃত ‘মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি’ কোভিড-১৯ এর চিকিৎসায় জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে দেশটির খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ)।
এফডিএ জানিয়েছে, যাদের মৃদু উপসর্গ রয়েছে- এমন প্রাপ্ত বয়স্ক এবং ১২ বছরের বেশি বয়সী বাচ্চাদের উপর এটি প্রয়োগ করা হবে। তবে করোনা আক্রান্ত যেসব রোগীর স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি রয়েছে যেমন-ডায়াবেটিস, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি সমস্যা, স্থূলতা এবং ৬৫ বছরের বেশি বয়সী মানুষকে এ চিকিৎসা দেওয়া হবে না। সেই সঙ্গে যাদের হাসপাতালে ভর্তি প্রয়োজন তাদেরকেও এই চিকিৎসা দেওয়া হবে না।

করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তির দেহের রক্তরসে এক সময়ে প্রাকৃতিকভাবে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়। আর মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি হচ্ছে, তারই রাসায়নিক সংস্করণ। মানবদেহের মূল রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থার জৈব-রাসায়নিক গুণাগুণ গবেষণাগারে সম্পূর্ণ রাসায়নিক মাধ্যমে রুপান্তর করা হয়। যাকে বলা হয় বামলানিভিমব।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে হাসপাতালে ভর্তির পর বামলানিভিমবের মতো একটি মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি মিশ্রণ জরুরি ভিত্তিতে দেওয়া হয়।
এফডিএ নিশ্চিত করেছে যেসব রোগীর হাসপাতালে ভর্তি প্রয়োজন, শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে অক্সিজেন দরকার তাদেরকে এলি লিলি’র অ্যান্টিবডি প্রয়োগ করা হবে না।
এফডিএ বলেছে, মৃদু উপসর্গের কোভিড-১৯ আক্রান্ত ৪৬৫ জন প্রাপ্ত বয়স্ক রোগী নিয়ে এলি লিলি দ্বিতীয় পর্যায়ের ক্লিনিকাল ট্রায়াল সম্পন্ন করে। এই ট্রায়াল পর্যবেক্ষণ করে অ্যান্টিবডি প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এলি লিলির দাবি, তাদের তৈরি মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি মিশ্রণ আক্রান্তের দেহে কোভিড-১৯ সৃষ্টিকারী করোনাভাইরাসের পরিমাণ কমাতে সাহায্য করবে। পাশাপাশি গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সংখ্যাও হ্রাস করতে সাহায্য করবে।এফডিএ জানায়, বামলানিভিমের সম্ভাব্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে বমি বমি ভাব, ডায়রিয়া, মাথা ঘোরা, মাথাব্যথা এবং এলার্জি।
এলি লিলি ইতিমধ্যে ওষুধ প্রস্তুত করতে শুরু করেছে এবং চলতি বছরের শেষ নাগাদ তারা ১০ লাখ ডোজ সরবরাহ করতে পারবে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না।