শেরপুরে বিশ্বা দ্বি-মুখি উচ্চ বিদ্যালয়ের নৈশ্য পহরী অবহেলায় স্কুলে চুরি

0 66

।। আব্দুল ওয়াদুদ ।।  বগুড়া শেরপুরে বিশ্বা দ্বি-মুখি উচ্চ বিদ্যালয়ে নৈশ্য পহরী ইমরান শেখের দায়িত্ব অবহেলায় স্কুলে চুরির ঘটনায় শেরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, বিশ্বা দ্বি-মুখি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম গত ২৭ জুলাই অফিসিয়াল কাজে স্কুলে যায়। কিন্তু স্কুলে নৈশ পহরী পায়নি এবং স্কুলের দরজা ভাঙ্গা দেখে ঘরে গিয়ে দেখতে পাই ৫টি ফ্যান চুরি হয়েছে। প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম এ ঘটনায় ২৭ জুলাই শেরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করে।
চুরি ঘটনা ঘটলে অনুসন্ধান করে জানা যায়, নৈশ্য পহরী ইমরান শেখের পিতা গোলাম রব্বানীর বিশ্বা দ্বি-মুখি উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি হওয়ার সময় তাকে নিয়োগ দেওয়া হয়। এ নিয়োগ নিয়েও এলাকাবাসীর মাঝে বিরুপ সৃষ্টি হয়। নিয়োগের পর থেকে পিতা সভাপতি হওয়ায় নৈশ্য পহরী ইমরান শেখ খেয়াল খুশিমত ডিউটি করে। দায়িত্ব অবহেলার কারণে সাবেক ম্যানেজিং কমিটি নিয়ে মিটিং করে রেজিলেশন তৈরী করে। এতে নৈশ্য পহরী ইমরান শেখে প্রধান শিক্ষকের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে বিভিন্ন হুমকি দেয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ভ্যান চালক বলেন, আমরা রাত্রীতে ১২ থেকে ১টা পর্যন্ত থাকি কিন্তু নৈশ পহরী স্কুলে কখনও থাকতে দেখিনি। স্কুলের পার্শ্বের বাজারের এক ব্যক্তি বলেন, গোলাম রব্বানীর ছেলে নৈশ পহরী ইমরান চাকুরী পাওয়ার পর কয়েকদিন ছিল এখন প্রায় ২ বছর যাবত তাকে রাত্রিতে স্কুলে দেখিনা শুধু সন্ধায় লাইট জালিয়ে দিয়ে চলে যায়।
এ ব্যপারে প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম বলেন, নৈশ্য পহরী ইমরান শেখে ঠিকমত স্কুলে থাকেনা আমিও শুনেছি। যার কারণে শিক্ষা প্রতিষ্টানে ৫টি ফ্যান চুরি ঘটনা ঘটেছে। এবং চুরি হওয়ার জন্য শেরপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি।

এ ব্যাপারে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নজমুল হক বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি তাদের আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিয়াকত আলী বলেন, আমি অভিযোগ পায়নি, পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থ গ্রহন করা হবে।

Loading...