জামালপুরের মেলান্দহে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছে মশিউর রহমান

0 21

জামালপুর প্রতিনিধিঃ বিনামূল্যে ধনী থেকে হতদরিদ্র পর্যন্ত নানা ধরনের জটিল রোগের চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছে জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলায় নাংলা ইউনিয়নের বাগুরপাড়া গ্রামের মো: মশিউর রহমান। প্রতিদিন দূর দুড়ান্ত থেকে বিভিন্ন জটিল রোগের সু চিকিৎসা নিয়ে সুষ্ট হয়ে বাড়ি ফিরছেন অনেকেই। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,মেলান্দহ বাজার থেকে মাহমুদপুর রোড়ে গবিন্দপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশ দিয়ে মাত্র ৫ মিনিটের পথ। পাশেই ধান ক্ষেত ঘেষে মেঠো পথ দিয়ে গেলেই নাংলা ইউনিয়নের বাগুরপাড়া গ্রাম। সেই গ্রামের মৃত আব্দুল হক এর ছোট ছেলে মোঃ মশিউর রহমান। তিন ভাইয়ের মধ্যে সে সবার ছোট।

ছেলে বেলা থেকেই মানুষের জন্য কিছু করার চিন্তা ভাবনা থেকেই সেবা দিয়ে যাচ্ছে সে। তার পরিবারের লোকের সাথে কথা বলে জানা যায়, ২০১৮ সালের ২ ফেব্রয়ারী তারিখে স্বপ্নে যোগে সে বিশেষ ক্ষমতা পেয়ে পবিত্র কোরআনের আয়াতের মাধ্যমে মানুষের জটিল রোগের চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছে। তার কাছে এ পর্যন্ত প্রায় ৩ শতাধিক জটিল রোগী সুষ্ট হয়ে বাড়ি ফিরেছে।

জটিল রোগের চিকিৎসা সেবার মধ্যে বাত ব্যাথা,যৌন রোগ,জন্ডিস,ডায়াবেটিস,টিউমার,আলসার,কমর ব্যাথা,শরীর ব্যাথা,মুখে ঘা,মানসিক সমস্যা,দুচিন্তা,পারিবারিক সমস্যা সহ সর্ব প্রকার রোগের চিকিৎসা বিনামুল্যে দিয়ে মানুষের সেবা করে যাচ্ছে সাবেক এই সেনা সদস্য।

অল্পভাষী মশিউর রহমান মহামারী করোনা ভাইরাসের জন্য চিকিৎসা সেবা দিতেও ১ হাজারটি ওষুধ প্রস্তুত রেখেছে বলে জানিয়েছে সে। তার দাবী তার এই পবিত্র কোনআন থেকে নেওয়া ওধুষের মাধ্যমে অচিরেই রোগী ভাল হবে বলে জানান তিনি। মশিউর রহমানের চিকিৎসা সেবা নিয়ে ভাল হওয়া পারভিন বেগম জানান,তার মাথা ব্যাথা ও টিউমার ছিল । নানা জায়গায় চিকিৎসা সেবা নিয়েও সে সুষ্ঠ হতে পারেনি।পরে মশিউরের কাছে চিকিৎসা নিয়ে অল্প দিনেই সুস্থ্য হয়।
এ ব্যাপারে কথা হয় মোঃ হৃদয় মিয়ার সাথে তারও প¯্রাবের জটিল সমস্যা ছিল। তার ওষুধ সেবন করে সেও ভাল হয় খুব তাড়াতাড়ি। তাদের মত নয়ন মিয়া, আকলিমা,আব্দুর রহিমসহ অসংখ্য নানা জটিল রোগের রোগী মশিউরের বিনা পয়সার চিকিৎসায় ভালো হয়েছে। তার এই অবদানের জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্য মির্জা আজম তার প্রতি খুশি হয়ে তার জন্য লিখিত সুপারিশ করেছেন।

এ ব্যাপারে কথা হয় সাবেক সেনা সদস্য গরীবের চিকিৎসক মশিউর রহমানের সাথে। তিনি জানান, আল্লাহর পবিত্র কালামই সকল রোগের সেফা আছে। আর তার থেকেই সে মানুষের বিনামূল্যে যে কোন প্রকার জটিল রোগের চিকিৎসা সেবা সে দিয়ে যাচ্ছে। সে আগামীতেও সকল মানুষের জন্য চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাবে। যাতে করে মানুষ সকল প্রকার রোগ থেকে আল্লাহ মেহেরবানীতের মুক্ত থাকতে পারে। সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৩ টা পর্যন্ত সে এই রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকে।

Loading...